শনিবার, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং, ২রা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:৩০
Homeঅন্যান্যবিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্

ট্যুরিজ্‌ম নিউজ বিডিঃ

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স বাংলাদেশ সরকারের মালিকানাধীন একটি বিমান সংস্থা। ১৯৭২ সালের ৪ জানুয়ারি বিমান বাহিনীর DU-3 বিমান নিয়ে এর যাত্রা শুরু হয়।

 

বিমানের প্রধান কার্যালয়

 

বলাকা, কুর্মিটোলা, ঢাকা – ১২২৯, বাংলাদেশ।

 

ফোন: +৮৮-০২- ৮৯০১৬০০-১৪ এবং ৮৯০১৬৮০-৯৪ (পিএবিএক্স)

 

বিমানবন্দর প্রধান কার্যালয়

 

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, কুর্মিটোলা, ঢাকা- ১২২৯।

 

ফোন: +৮৮-০২-৮৯০১৫০০-১৯ এবং ৮৯০১৬৪০ (পিএবিএক্স)

 

জেলা অফিস

 

বলাকা, বিমান ভবন, মতিঝিল, ঢাকা, বাংলাদেশ।

ফোন: +৮৮-০২-৯৫৬০১৫১, ৮৯০১৫০০

 

সোনারগাঁ হোটেল বিমানবন্দর

প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল, ১০৭, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, ঢাকা, বাংলাদেশ।

 

ফোন: +৮৮-০২-৯৮৮৩৪৮৯

 

সিটি সেলস অফিস

 

বাড়ি # ৯৭, সড়ক # ৪, ব্লক # বি, কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বনানী, ঢাকা, বাংলাদেশ।

 

ফোন: + ৮৮-০২-৯৮৮৩৪৮৯

 

ওয়েব সাইট- www.biman-airlines.com

 

টেলেক্স- ৬৪২৬৪৯ DABG BJ

 

 

ই-মেইল:

 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক-mdbiman@bdbiman.com

 

সেলস- passengersales@bdbiman.com

 

পরামর্শ ও তথ্য- gmpr@bdbiman.com

 

কাস্টমার সার্ভিস- desbiman@bdbiman.com

 

ওয়েব সংক্রান্ত তথ্য- imtiaz@biman.com এবং anwar@bdbiman.com

চেক ইন

বিমানের চড়ার আগে চেক ইন-এর সময় কমানোর জন্য যাত্রীদের ফ্লাইটের ৩ ঘন্টা আগে উপস্থিত হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।  ভিসাসহ পাসপোর্ট হাতের কাছে রাখার পরামর্শ দেয়া হয় যাত্রীদের। এরপর নিরাপত্তা তল্লাশী সম্পন্ন করে ওয়েটিং লাউঞ্জে অপেক্ষা করার পরামর্শ দেয়া হয়। চেক ইন কাউন্টার ফ্লাইটের এক ঘন্টা আগে বন্ধ করা হয় আর গেট বন্ধ করা হয় ২০ মিনিট আগে।

যাবা প্রথমবার ভ্রমণ করছেন তাদের তিন ঘন্টা আগে চেক ইন করতে বলা হয়।

 

লাগেজ

বিজনেস ক্লাসের যাত্রীরা ৩০ কেজি, ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীরা ২০ কেজি ওজনের লাগেজ নিতে পারেন। শিশুদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১০ কেজি ওজনের একটি লাগেজ নেয়া যেতে পারে।

 

কেবিন ব্যাগেজের ওজন আকার

ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীরা সর্বোচ্চ ৭ কেজি এবং বিজনেস ক্লাসের যাত্রীরা সর্বোচ্চ ১০ কেজি ওজনের লাগেজ নিতে পারে। লাগেজের আকার ২২²×১৮‌²×১০² এর মধ্যে হতে হয়।

লাউঞ্জ

বিজনেস ক্লাসের যাত্রীদের জন্য হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ৩য় তলায় ‘দি মুসলিম লাউঞ্জ’ রয়েছে।

একা ভ্রমণ করা অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য

অপ্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য চেক ইন এবং প্রস্থানের ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা দেয়া হয়। তবে এজন্য বুকিং এর সময় বিশেষ ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানাতে হয়।

হুইল চেয়ার

অসুস্থ এবং শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা করে থাকে বিমান কর্তৃপক্ষ।

উড্ডয়ন কালীন সেবা

বাংলাদেশের সংস্কৃতি ও পশ্চিমা প্রভাব মিলিয়ে তাজা খাবারের সৃষ্টিশীল মেন্যুর ব্যবস্থা করা হয় বিমানের ফ্লাইটগুলোয়। বিমান ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টার অত্যান্ত সতর্কতার সাথে খাবার প্রস্তুত করে থাকে ফ্লাইটগুলোর জন্য। শুধু বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সই নয় বাংলাদেশের বিমান ব্যবহারকারী অনেক বিমান সংস্থা বিমান ফ্লাইট ক্যাটারিং সার্ভিসের সেবা নিয়ে থাকে।

নিচে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য মেন্যু করা হল-

  • টাটকা মৌসুমী শাক-সবজি দিয়ে তৈরি সালাদ।
  • চিকেন কারি এবং দেশে উৎপাদিত সুগন্ধি চালের ভাত, সেই সাথে লেবু এবং গ্রীন চিলি।
  • গোলাপ জলের সুগন্ধযুক্ত এবং বাদাম সমৃদ্ধ পায়েশ।

 

রাতের মেন্যু

টাটকা মৌসুমী ফলের সালাদ

  • ভাতের সাথে মাংসের তরকারী, মুগডাল, মৌসুমী শাক-সবজি, গ্রীন চিলি, বাটার নান।
  • দই।

 

সকালের নাস্তা

  • বিভিন্ন তাজা ফলের রস, পনির, মাশরুম, মাখন, জ্যাম, চা, কফি।

 

অন্যান্য

  • এছাড়া বিমান কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের বিমানবন্দরগুলোয় গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিংকের কাজ করে থাকে।

 

দেশের বাইরে আসাযাওয়ার সময় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুসৃত নিয়মকানুন

শল্ককর আরোপোযোগ্য পণ্ডের সংক্ষিপ্ত তালিকা

ব্যক্তিগত বা গৃহস্থলির কাজে ব্যবহৃত পণ্যের জন্য কোন শুল্ক দিতে হয় না। সর্বোচ্চ দু’টি স্যুটকেস শুল্কমুক্তভাবে নেয়া যায়। তবে তৃতীয় স্যুটকেসে বইপত্র, সাময়িকী বা শিক্ষার উপকরণ থাকলে তার জন্য কোন শুল্ক দিতে হয় না। তবে বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে কোন কিছু আনলে তার জন্য শুল্ক দিতে হয়।

 

কিছু পণ্য শুল্কমুক্তভাবে আনা যায়। তবে প্রত্যেকে একটি করে আনতে পারেন। পণ্যগুলো হল:

০১. ক্যাসেট প্লেয়ার/ টুইনওয়ান,

০২. ডিস্কম্যান/ ওয়াকম্যান (অডিও),

০৩. বহনযোগ্য অডিও সিডি প্লেয়ার,

০৪. ডেস্কটপ/ ল্যাপটপ কম্পিউটার (প্রিন্টার ও ইউপিএস সহ),

০৫. কম্পিউটার স্ক্যানার,

০৬. কম্পিউটার প্রিন্টার,

০৭. ফ্যাক্স মেশিন,

০৮. ভিডিও ক্যামেরা (HD Cam, DV Cam, BETA Cam এবং Professional কাজে ব্যবহৃত হয় এরুপ ক্যামেরা ব্যতীত)

০৯. ষ্টীল ক্যামেরা/ ডিজিটাল ক্যামেরা,

১০. সাধারণ/ পুশবাটন, কর্ডলেস টেলিফোন সেট,

১১. সাধারণ ইলেক্ট্রিক ওভেন/ মাইক্রোওয়েভ ওভেন,

১২. রাইস কুকার/ প্রেসার কুকার,

১৩. টোস্টার/ স্যান্ডউইচ মেকার/ ব্লেন্ডার/ ফুড প্রসেসর/ জুসার/ কফি মেকার,

১৪. সাধারণ ও বৈদ্যুতিক টাইপরাইটার,

১৫. গৃহস্থলী সেলাই মেশিন (ম্যানুয়াল/ বৈদ্যুতিক),

১৬. টেবিল /প্যাডেস্টাল ফ্যান/ সিলিং ফ্যান,

১৭. স্পোর্টস সরঞ্জাম (ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য)

১৮. ২০০ গ্রাম ওজনের স্বর্ণ/ রৌপ্য অলংকার (এক প্রকার অলংকার ১২ টির অধিক হইবে না),

১৯. এক কার্টন (২০০ শলাকা) সিগারেট,

২০. ২৯  ইঞ্চি পর্যন্ত রঙ্গিন (CRT) সাদা কালো টেলিভিশন,

২১. ভিসিআর/ ভিসিপি,

২২. সাধারণ সিডি ও দুইটি স্পীকারসহ কম্পোনেট (মিউজিক সেন্টার) (সিডি/ ভিসিডি/ ডিভিডি/ এলডি/ এমডি সেট),

২৩. ভিসিডি/ ডিভিডি/ এলিডি/ এমডি/ ব্লু  রেডিক্স প্লেয়ার),

২৪. এলসিডি কম্পিউটার মনিটর (টিভি সুবিধা থাকুক বা নাই থাকুক) ১৭ ইঞ্চি পর্যন্ত,

২৫. একটি মোবাইল/ সেলুলার ফোন সেট।

 

আর কিছু পণ্য ব্যাগেজ হিসেবে আমদানী করা হলেও শুল্ক দিতে হয়। সেগুলোর তালিকা:

০১. Plasma, LCD. TFT ও অনুরুপ প্রযুক্তির টেলিভিশন-

ক) ১৮ ইঞ্চি থেকে হইতে ২১ ইঞ্চি পর্যন্ত ৭,৫০০ টাকা।

খ) ২২ ইঞ্চি থেকে হইতে ২৯ ইঞ্চি পর্যন্ত ১৫,০০০ টাকা।

গ) ৩০ ইঞ্চি থেকে হইতে ৩৬ ইঞ্চি পর্যন্ত ২০,০০০ টাকা।

ঘ) ৪৭ ইঞ্চি থেকে হইতে ৫২ ইঞ্চি পর্যন্ত ৭০,০০০ টাকা।

ঙ) ৫৩ ইঞ্চি বা তার উধের্ব সাইজ ১০,০০,০০০ টাকা।

০২. ক) চারটি (৪) স্পীকারসহ কম্পোনেনট (মিউজিক সেন্টার) (সিডি/ ভিসিডি/ ডিভিডি/ এলডি/ এমডি/ ব্লু রেডিক্স সেট) ৪,০০০ টাকা।

খ) চারটি (৪) এর অধিক তবে সর্বোচ্চ ৮ টি স্পীকারসহ ( মিউজিক সেন্টার/ স্পীকার নির্বিশেষে হোম থিয়েটার (সিডি/ ডিভিডি/ এলডি/ এমডি/ ব্লু রেডিক্স সেট) ৮,০০০ টাকা।

০৩. রেফ্রিজারেটর/ ডিপ ফ্রিজার- ৫,০০০ টাকা।

০৪. ডিশ ওয়াশার/ ওয়াশিং মেশিন/ ক্লথ ড্রাইয়ার- ৩,০০০ টাকা।

০৫. এয়ারকুলার/ এয়ারকন্ডিশনার।

ক) উইন্ডো টাইপ-৭,০০০ টাকা।

খ) স্লিট টাইপ- ১৫,০০০ টাকা।

০৬. ওভেন (বার্ণারসহ)-৩,০০০ টাকা।

০৭. ডিশ এন্টেনা- ৭,০০০ টাকা।

০৮. স্বর্ণবার বা স্বর্ণ পিন্ড (সর্বোচ্চ ২০০ গ্রাম) প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম- ১৫০ টাকা।

০৯.  রৌপ্যবার বা রৌপ্য পিন্ড (সর্বোচ্চ ২০০ গ্রাম) প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম ৬ টাকা।

১০. HD Cam, DV Cam, BERA CAM এবং Professional কাজে ব্যবহৃত হয় এরুপ ক্যামরা।

১১. এয়ারগান/ এয়ার রাইফেল- ৫,০০০ টাকা। (বাণিজ্য মন্ত্রাণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে আমদানিযোগ্য, আমদানী নীতি আদেশ ২০০৯-২০১২ দ্রষ্টব্য)

১২. ঝাড়বাতি-৩০০ টাকা।

১৩. কার্পেট ১৫ বর্গ মিটার পর্যন্ত ৩০০ টাকা (প্রতি বর্গমিটার।)

 

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


উপরে