বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন২০১৭, ১৫ আষাঢ়১৪২৪, দুপুর ১:১৩

Space for ad

Space for ad

Homeখেলার খবরভেন্যু পরিবর্তনে হতাশ সিলেট, উচ্ছ্বসিত খুলনা
যুব বিশ্বকাপ

ভেন্যু পরিবর্তনে হতাশ সিলেট, উচ্ছ্বসিত খুলনা


ট্যুরিজ্‌ম নিউজ বিডিঃ

আগামী মার্চে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের জন্য ২০ জানুয়ারির মধ্যে সিলেট ভেন্যু আইসিসিকে বুঝিয়ে দিতে হবে বিসিবিকে। এ জন্য বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের মধ্যেকার ২টি টি টোয়েন্টি ম্যাচ সিলেটে আয়োজনের কথা থাকলেও, শেষ মুহূর্তে ম্যাচের ভেন্যু পরিবর্তন করে খুলনায় স্থানান্তর করেছে বিসিবি।

এদিকে, বিসিবির এমন সিদ্ধান্তে হতাশ সিলেটের সমর্থকরা। ভবিষ্যতে বিষয়টি বিবেচনা করে সিলেটে আরো আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনেরও দাবি তাদের। আর সবগুলো ম্যাচ খুলনায় হওয়ায় আনন্দে ভাসছেন খুলনার সমর্থকরা।

দীর্ঘদিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরেছে সিলেটে। হোক না প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। প্রথমবারের মতো সাকিব, তামিম, মাশরাফিদের খেলা দেখাটাই বড় ছিল ক্রিকেট প্রেমীদের কাছে। ক্রিকেট উন্মাদনায় মেতে ওঠার এই উপলক্ষকে সামনে রেখে অপেক্ষার প্রহর গুনছিল সমর্থকরা। কিন্তু হঠাৎই বিনা মেঘে বজ্রপাতের মত ভেন্যু পরিবর্তন করেছে বিসিবি। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম থেকে সবগুলো ম্যাচ সরিয়ে নেয়া হয়েছে খুলনায়। জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশের মধ্যেকার ৪টি ম্যাচই হবে এখন খুলনা শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে।

ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি আসরের বেশ কয়েকটি ম্যাচও হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। তবে, সেখানে বাংলাদেশের কোন ম্যাচ থাকছে না। পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তানের কয়েকটি ম্যাচ রাখা হয়েছে সিলেটে। ১৬ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার এই স্টেডিয়াম থেকে বাংলাদেশের ম্যাচ সরিয়ে নেয়ায় হতাশ সিলেটের ক্রিকেটপ্রেমীরা।

সিলেটের ক্রিকেটপ্রেমীদের হতাশার দিনে, আনন্দের দুয়ার খুলেছে খুলনার দর্শকদের মাঝে। শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ের ম্যাচ আয়োজনের খবরে আনন্দের জোয়ারে ভাসছেন খুলনার সমর্থকরা।

১৫ জানুয়ারি শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশ।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

আপনি চাইলে এই এইচটিএমএল ট্যাগগুলোও ব্যবহার করতে পারেন: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

এই মাত্র পাওয়া